আমার মোবাইলে কত এমবি আছে কিভাবে জানতে পারব?

আমার মোবাইলে কত এমবি আছে কিভাবে জানতে পারব?

বাংলাদেশে আমরা যারা মোবাইল ব্যবহার করে থাকি তার একটি বড় অংশ মোবাইল ডাটা ব্যবহার করি এবং প্রতি মাসেই আমরা মোবাইল ডাটা বা এমবি মোবাইল অপারেটর থেকে কিনে থাকি। মোবাইলে কথা বলার সময় আমরা যেমন বুঝতে পারি কত মিনিট কথা বলা হল এবং সেভাবে আমরা আমাদের খরচের হিসেব করে ফেলি খুব সহজেই কিন্তু মোবাইল ডাটা কতটুকু খরচ হল সেটার হিসেব ঠিক সেভাবে রাখা যায় না। তাই আমার মোবাইলে কত এমবি আছে এই প্রশ্নটি আমরা করে ফেলি অনেক সময়। জানতে চাই আমার মোবাইলে কত এমবি আছে? নিজেদের মোবাইল থেকেই আমরা এই প্রশ্নের উত্তর বের করে নিতে পারি। আসুন আজকের ব্লগে আমরা জেনে নেই আমার মোবাইলে কত এমবি আছে তা কিভাবে জানতে পারব?

এমবি বা মোবাইল ডাটা কি?

এমবি হল মেগাবাইট (Megabyte)। এর মূল একক হল বাইট (Byte)।  ১ মেগাবাইট =১,০২৪ কিলোবাইট, বা ১০,৪৮,৫৭৬ বাইট। আপনি মোবাইল বা কম্পিউটার দিয়ে যে তথ্যগুলো দেখতে পাচ্ছেন সেই তথ্যগুলো প্যাকেট আকারে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আপনার ডিভাইসে প্রবেশ করছে। এই প্যাকেট আকারে আসা তথ্যগুলোর একক হল বাইট। আমরা একেই এমবি বলে থাকি সচরাচর। আসুন দেখে নেই এই এমবির সম্পর্ক গুলো দেখে নেই।

  • ১ মেগাবাইট (MB)= ১,০২৪ কিলোবাইট
  • ১ গিগাবাইট (GB)= ১,০২৪ মেগাবাইট
  • ১ টেরাবাইট (TB)= ১,০২৪ গিগাবাইট

মোবাইলে এমবি কেন প্রয়োজন

আপনি যদি মোবাইলে শুধু ডায়াল করে কথা বলেন তাহলে আপনার ডাটার প্রয়োজন নেই কিন্তু আপনি যদি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনার অবশ্যই মোবাইল ডাটা লাগবে। মানে আপনি যদি ফেসবুক ব্যবহার করতে চান, ইউটিউব এ ভিডিও দেখতে চান, হোয়াটসএপ, ইমো ইত্যাদি অনলাইন ভিত্তিক মেসেঞ্জার ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনার এমবি লাগবেই।

আমি কেন ফেসবুক ঘৃণা করি।

আমরা সাধারণত মোবাইলে মাসিক কিংবা সাপ্তাহিক ভিত্তিতে এমবি বা ডাটা কিনে থাকি। হয়ত ২ জিবি/৩জিবি অথবা তার চেয়েও বেশি। প্রতিদিন মোবাইলে ব্যালেন্স জানা যেমন জরুরী তেমনি মোবাইলের ডাটার ব্যালেন্স জানাটাও জরুরী।

আমার মোবাইলে কত এমবি আছে কিভাবে জানতে পারব?

আপনি কোন মোবাইল অপারেটরের মোবাইল সিম ব্যবহার করেন তার উপর নির্ভর করে আপনি কিভাবে আপনার মোবাইলে কত এমবি আছে তা দেখবেন। বাংলাদেশে গ্রামীণ, রবি, বাংলালিংক, টেলিটক  এবং এয়ারটেল এই চারটি মোবাইল অপারেটর টেলিকম সেবা দিয়ে যাচ্ছে দীর্ঘ দিন যাবত। নিচে প্রতিটি মোবাইল অপারেটরে কিভাবে এমবি চেক করা যায় তা ছক আকারে দেয়া হল।

সিরিয়াল অপারেটর কিভাবে এমবি চেক করবেন
গ্রামীণ *১২১*১*৪#
রবি *৩#
বাংলালিংক *১২১*১# অথবা *৫০০০*৫০০#
টেলিটক *১৫২#
এয়ারটেল *৮৪৪৪*৮৮#

এমবি বা মোবাইল ডাটা কেন চেক করবেন?

আগেকার দিনের বাটন ফোন বা ফিচার ফোন আর এখনকার দিনের স্মার্ট ফোনগুলোর মধ্যে কিছু পার্থক্য রয়েছে। ফিচার ফোনগুলোতে আপনি যেমন সিমীত মাত্রায় ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন তেমনি এই ফোনগুলো তেমন ইন্টারনেট কনজিউম করতে পারেনা।

আর এখনকার দিনের স্মার্ট ফোনগুলো প্রতিটা মুহূর্তে ইন্টারনেট ব্যবহারে ওস্তাদ। আপনার ডাটা ফাংশন যদি অন করা থাকে তাহলে সে প্রতি মুহূর্তে ডাটা কনজিউম করে যাচ্ছে আপনার অগোচরেই। বেশ কিছু এপ্স বা সফটওয়্যার এমন যা প্রতিনিয়ত আপডেট হয়, যেমন ওয়েদার রিপোর্টের এপ্স। এটি প্রতি ঘন্টায় ঘন্টায় সার্ভার থেকে ডাটা কালেক্ট করছে। এবং আপনার এমবি কেটে নিচ্ছে।

এছাড়াও যেকোন এপ্স নতুন ভার্সন পেলেই তা অটোমেটিক আপডেট করে নিচ্ছে। মোবাইল ডাটা যদি অন করা থাকে তাহলে তা আপনাকে ফতুর করে দিবে। এসকল আপডেট আপনি তখনই করবেন যখন আপনি কোন ওয়াইফাই নেটওয়ার্কে যুক্ত থাকবেন। মোবাইল ডাটার যেহেতু দাম বেশি তাই এসব কাজ মোবাইল ইন্টারনেটের মাধ্যমে না করাই ভাল।

মাঝে মধ্যে মোবাইল ডাটা চেক করে আপনি তাই আপনি আপনার মোবাইল ডাটা কেমন খরচ হচ্ছে তা বুঝে নিতে পারেন। আমার মোবাইলে কত এমবি আছে তা জানার দরকার আছে অবশ্যই।

মোবাইল এমবি খরচ বেশি হয় কিভাবে?

মোবাইল এমবি দিয়ে আমরা অডিও শুনি, ইউটিউবে ভিডিও দেখি, ফেসবুক ব্রাউজিং করি, বিভিন্ন ওয়েবসাইট ব্রাউজিং করি, ভয়েস কল করি, ভিডিও কল করি ইত্যাদি নানা প্রকার কাজ করে থাকি। মনে রাখতে হবে, সব কাজে কিন্তু সমান এমবি খরচ হয় না। আপনার ব্যবহারের ধরন অনুযায়ি এমবির খরচও কম বেশি হয়ে থাকে।

যেমন আপনি যদি শুধু ইন্টানেটে ওয়েবসাইট ব্রাউজ করেন আপনার খরচ অনেক কম। অডিও গান শুনলে খরচ আরেকটু বেশি হবে। আবার যদি ভিডিও দেখেন তাহলে তার খরচ আরও বেশি হবে। আপনার দেখা ভিডিও এর কুয়ালিটি যদি অনেক ভাল মানের হয় মানে এইচডি (HD) কিংবা ফোরকে (4K) তাহলে তার খরচ আরও অনেক বেশি হবে।

তাই এসব ব্যাপারে আসলে মোবাইল অপারেটরকে দোষ দিয়ে লাভ নেই। আপনি যেরকম ব্যবহার করেছেন আপনার ব্যালেন্স থেকে সেরকম এমবি কাটা হয়েছে।

খরচ কমানোর জন্য ভিডিও কুয়ালিটি লো করে দেখতে পারেন। খরচ কম হবে। একই ভিডিও বার বার দেখার অভ্যাস থাকলে তা ডাউনলোড করে দেখুন।

এছাড়াও এমবি কম কাটার উপায় কি জানেতে এই পোষ্ট পড়ে দেখুন।

মোবাইল ডাটা প্যাকেজ কিভাবে বাছাই করবেন?

মোবাইল ডাটা প্যাকেজ নেয়ার আগে কিছু বিষয় জেনে নিন। আগে বুঝে নিন আপনি কি ধরনের ব্যবহারকারি। আপনি যদি বেশি বেশি ভিডিও দেখতে অভ্যস্ত হয়ে থাকেন তাহলে আপনি অবশ্যই বড় ইন্টারনেট প্যাকেজ নিয়ে নিন।

বেশিরভাগ মোবাইল অপারেটর ৭ দিন বা ৩ দিনের প্যাকেজগুলোতে অনেক কম দাম রাখে। আপনার যখন প্রয়োজন তখন এমন প্যাকেজ আপনি নিতে পারেন।

এছাড়া কিছু বান্ডেল সব মোবাইল অপারেটরেরই রয়েছে যেখানে ভয়েস কলের সাথে মোবাইল ডাটা বেশ কম দামে পাওয়া যায়। এমন বান্ডেল কিনলেও তা আপনার জন্য বেশ সাশ্রয় হবে।

আশা করি আমার মোবাইলে কত এমবি আছে তা আপনি কিভাবে চেক করবেন, শিখে নিয়েছে। ধন্যবাদ সবাইকে।


Leave a Reply