Hotspot কিভাবে চালু করব

Hotspot কিভাবে চালু করব? যারা নতুন স্মার্ট ফোনের ইউজার তারা এই প্রশ্ন করতেই পারেন। যারা বিষয়টি জানেন তাদের জন্য জানতে চাওয়াটি খুবই হাস্যকর মনে হতে পারে। কিন্তু ব্যাপারটি খুব সহজ কাজ হলেও মোটেই হাস্যকর নয়। যারা জানেননা Hotspot কিভাবে চালু করব তাদের জন্যই আমার আজকের এই ব্লগ। আসুন দেরি না করে শুরু করি।

তবে হ্যা, আপনি যেহেতু নতুন, তাই আপনাকে একই সাথে আরও কিছু জিনিষ জেনে নিতে হবে। তাই পুরো লেখাটি পড়ুন। জানতে পারবেন অনেক কিছুই। এই যেমন হটস্পট কি? কিভাবে কাজ করে? এর সুবিধা-অসুবিধা কি? কেন ব্যবহার করা হয় ইত্যাদি না বিষয়।

Hotspot কি?

Hotspot বা হটস্পট হল আপনার মোবাইল ফোনের হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার এবং মোবাইল ডেটার এক অপূর্ব সমন্বয় যার মাধ্যমে আপনি আপনার মোবাইল ফোনকে একটি পকেট রাইউটারের মত ব্যবহার করতে পারবেন। মোবাইল হটস্পটকে Portable Hotspot ও বলা হয়ে থাকে।

আরেকটু যদি সহজ ভাষায় বলি, তাহলে বলতে হয়- হটস্পট  আপনার মোবাইল ফোনের এমন একটি সেবা যার মাধ্যমে আপনি আপনার মোবাইল ডেটা প্যাক অন্য কারও সাথে ওয়াই-ফাই এর মত শেয়ার করতে পারবেন।

আপনার বন্ধু আপনার ডেটা প্যাক তার মোবাইল বা অন্য কোন ডিভাইসে ব্যবহার করতে পারবে ততক্ষন যতক্ষন যে আপনার মোবাইলের ওয়াই-ফাই সীমানার মধ্যে থাকবে। অবশ্যই আপনার অনুমতি সাপেক্ষে।

Hotspot কিভাবে কাজ করে?

আপনার মনে অবশ্যই আসতে পারে Hotspot কিভাবে কাজ করে, তাই না? আমরা খুব গভীর বিশ্লেষণে যাচ্ছিনা। খুব ছোট করে বলতে গেলে বলতে হয়- আপনি যখন আপনার মোবাইলে হটস্পট চালু করবেন তখনই আপনার মোবাইল ফোন তার চারদিকে একটি নির্দিষ্ট জায়গা জুড়ে একটি ওয়াই-ফাই জোন তৈরী করে নেয়।

আপনার বন্ধুটি যদি এই রেঞ্জের মধ্যে থাকে তাহলে সে আপনার দেয়া পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে এই নেটওয়ার্কে সংযুক্ত হয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করতে সক্ষম হবে। দারুন ব্যাপার তাইনা? তাহলে আসুন এবার শিখে নেই কিভাবে Hotspot কিভাবে চালু করব?

Hotspot কিভাবে চালু করব?

আপনি খুব সহজে আপনার মোবাইলে Hotspot চালু করতে পারেন। প্রথমবার হটস্পট চালু করতে হলে আপনাকে আপনার হটস্পট কনফিগার বা সেট আপ করে নিতে হবে তাই একটু লম্বা কাজ করে নিতে হবে। পরেরবার থেকে আর এত ঝামেলা পোহাতে হবেনা।

যখন প্রথমবার Hotspot চালু করবেন

প্রথমে একটু সংক্ষেপে বলি যদি বুঝে উঠতে পারেন তাহলে আর পুরা লেখা পড়ার দরকার হবেনা। আর যদি বুঝতে সমস্যা হয় তাহলে নিছে ছবি সহ বুঝিয়ে দেয়া আছে, খুব সহজেই বুঝতে পারবেন।

সংক্ষিপ্ত পদ্ধতিঃ

  • Setting> Wireless & networks> Tethering & portable hotspot> Portable wi-fi hotspot> Configure hotspot
  • Configure hotspot এ গিয়ে আপনার হটস্পটের নাম দিন, পাসওয়ার্ড দিন এবং সেভ দিয়ে বের হয়ে আসুন।

হটস্পট কিভাবে চালু করব

  • উপরে দেখুন, ১ চিহ্নিত জায়গাতে আমি ট্যাপ করে আমার Hotspot কিভাবে চালু করেছি এবং চালু করার পর ২ চিহ্নিত জায়গায় মানে মোবাইলে নোটিফিকেশন বারে আমার হটস্পট চালু হবার নোটিফিকেশন চালু হয়ে গেছে।
মনে রাখবেন
আপনার মোবাইল ডেটা চালু না থাকলে হটস্পট চালু হবেনা।

বিস্তারিত পদ্ধতিঃ

  • সাধারণত সব্বাই এই পদ্ধতিতেই হটস্পট চালু করে থাকেন। প্রথমে আপনি আপনার মোবাইলের সেটিংস অপসনে যাবেন। নিচের ছবির দিকে খেয়াল করুন।

  • উপরের ছবিতে ভাল করে দেখুন। আমি আপনার সুবিধার জন্য লাল তীর দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছি; সেটিং অপশনের আইকন বা চিহ্ন কোনটি।
  • এই মেনু কিভাবে পাবেন। মোবাইলের স্ক্রীন লক খুলে উপর থেকে হাতের আংগুল দিয়ে টাচ করে নিচের দিকে আসুন তাহলেই আপনি এই মেনু পেয়ে যাবেন। সব এন্ড্রয়েড মোবাইলের জন্যই ব্যাপারটি একইভাবে কাজ করে। একে কুইক সেটিং ড্রয়ার বলে।
  • আপনি সেটিংসে যাবার পর নিচের ছবির মত স্ক্রীন পেয়ে যাবেন।

সেটিংস অপশন

  • এখান থেকে আপনি Wireless & networks এই অপশনে ট্যাপ করবেন মানে হল টাচ করবেন তাহলে নিচের স্ক্রীন পেয়ে যাবেন।

hotspot পোর্টেবল

  • এরপর আপনি  Tethering & portable hotspot এ ট্যাপ করে পরের অপশনে চলে যাবেন। তাহলে নিচের মত একটি স্ক্রীন পেয়ে যাবেন।

  • এবার আপনি Portable Wi-Fi hotspot ট্যাপ করে পরের স্ক্রীনে চলে যান, আপনি নিচের স্ক্রীনের মত স্ক্রীন পেয়ে যাবেন।

হটস্পট সেটিংস

  • এখানে ভাল করে দেখুন আমি তিনটি অংশ মার্ক করে দিয়েছি ১.২.৩ চিহ্ন দিয়ে। ৩ নাম্বার অংশটি আপনি ইংরেজি বুঝে থাকলে পড়ে সাহায্য নিতে পারেন।
  • ১ নম্বর চিহ্নিত অংশ দিয়ে আমার নিজের হটস্পটের নাম দেখা যাচ্ছে।
  • আপনি ২ নম্বর অংশে ট্যাপ করে পরের স্ক্রীনে চলে যাবেন। তাহলে আপনি নিচের মত একটি স্ক্রীন দেখতে পাবেন। যেখানে আপনি আপনার হটস্পট সেট আপ করে নিবেন।

ওয়াইফাই হটস্পট সেটআপ

  • আমি আবারও চারটি চিহ্ন দিয়েছি। ১ চিহ্নিত জায়গাতে আপনি আপনার হটস্পটের নাম দিবেন। মানে যা নামে আপনি আপনার হটস্পটটিকে দেখতে বা দেখাতে চান।
  • ২ চিহ্নিত স্থানে আপনি WPA2PSK সিলেক্ট করবেন। এটা আপনার ওয়াই-ফাই জোনের সিকিউরিটি। তাহলে আপনি পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখতে পারবেন। যেকেও চাইলেই আপনার নেট ব্যবহার করতে পারবেনা, যদি আপনি পাসওয়ার্ড না দেন।
  • ৩ চিহ্নিত জায়গাতে আপনি আপনার হটস্পটের পাসওয়ার্ড দিন। একটু শক্ত পাসওয়ার্ড দিবেন যাতে কেও আপনার ওয়াই-ফাই পাসওয়ার্ড হ্যাক করতে না পারে।
  • মনে রাখবেন, পাসওয়ার্ড সবসময় ৮ অক্ষরের দিতে হয়। কম দিলে সেটা নিবে না।
পাসওয়ার্ড

পাসওয়ার্ড কিভাবে আরও সিকিউরড করবেন?

ইন্টারনেটের এই যুগে পাসওয়ার্ড শব্দটার সাথে আমরা কম বেশি সবাই পরিচিত। কিন্তু এর গুরুত্ব অনেকেই বুঝতে চাই না। আপনার এটিএম কার্ড, বিকাশ কিংবা রকেটের পিন কোডের  মতই ইন্টারনেটের বিভিন্ন পাসওয়ার্ডও অনেক গুরুত্ব বহন করে। ইন্টারনেটের বিভিন্ন পাসওয়ার্ড বলতে আপনার বাসার ওয়াইফাই রাউটারের পাসওয়ার্ড থেকে শুরু করে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড সমান গুরুত্বপূর্ণ। আজকের ব্লগে […]

0 comments
  • এবার ৪ চিহ্নিত জায়গাতে আপনি Save এ ট্যাপ করে সেভ করে নিন।
  • আবার আবার প্রথম ছবির মত মোবাইলের শর্টকাট মেনুতে যান, মানে কুইক সেটিং ড্রয়ারে চলে যান। hotspot আইকনে বা চিহ্নতে হালকা ট্যাপ করে আপনার হটস্পট চালু করে নিন। নিচের ছবি দেখে পুরাপুরি বুঝে নিন।

হটস্পট কিভাবে চালু করব

  • উপরে দেখুন, ১ চিহ্নিত জায়গাতে আমি ট্যাপ করে আমার Hotspot কিভাবে চালু করেছি এবং চালু করার পর ২ চিহ্নিত জায়গায় মানে মোবাইলে নোটিফিকেশন বারে আমার হটস্পট চালু হবার নোটিফিকেশন চালু হয়ে গেছে।
  • মনে রাখবেন আপনার মোবাইল ডেটা চালু না থাকলে হটস্পট চালু হবেনা।

জানার আছে আরও অনেক কিছুই

হটস্পট নিয়ে জানার আরও অনেক কিছুই আছে। এখানে আমি চেষ্টা করছি কিছু তথ্য আপনাদে সামনে উপস্থাপন করতে। ধৈর্য সহকারে পড়তে থাকুন।

হটস্পটের সুবিধা কি

  • যারা মোবাইল ডাটা প্যাক ব্যাবহার করেন তারা জানেন মোবাইল ডাটার দাম বেশি, কিন্তু বড় প্যাকেজের দাম কম, বাসার একজন বড় প্যাকেজ কিনে নিয়ে বাসার সব্বাই তাই এক প্যাকেজের ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারেন।
  • আবার ধরেন আপনার প্যাকেজের মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে, কিন্তু এখনও অনেক ডেটা বা এমবি বাকি রয়ে গেছে। সেক্ষেত্রেও আপনার ডেটা বা এমবি সব্বাই মিলে ব্যবহার করে টাকা উসুল করতে পারেন।
  • আপনার বন্ধুর ডেটা বা এমবি শেষ হয়ে গেছে? কোন সমস্যা নেই আপনার এমবি শেয়ার করে নিতে পারেন।
  • মোবাইলের ডেটা বা এমবি দিয়ে ল্যাপটপ, ডেস্কটপ, টিভি, গুগল হোম সব চালাতে পারবেন নিশ্চিন্তে। কোন বাধা ছাড়াই।
  • আবার আপনি যদি দুইটি মোবাইল ব্যবহার করে থাকেন কেন দুই মোবাইলেই ডেটা প্যাক কিনবেন? একটি মোবাইলকে হটস্পট করে অন্য মোবাইলে ইন্টারনেট ব্যবহার করুন।

Hotspot ব্যবহারে সতর্কতা

ভাবতে পারেন আমার মোবাইলে হটস্পট আমি দিচ্ছি এর আবার সতর্কতা কি? হুম, সতর্কতা অবশ্যই মেনে চলতে হবে। ডিজিটাল যুগ ভাই। কি কি সতর্কতা অবলম্বন করবেন ভাল করে পড়ে নিন।

  • আপনার হটস্পটে পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন। ফ্রি মুডে পাসওয়ার্ড না দিয়ে  রাখবেন না।
  • আপনার মোবাইলের হটস্পট নাম এবং পাসওয়ার্ড অন্ততঃ মাসে একবার পরিবর্তন করুন।

আপনি হয়ত আজকে একজনকে আপনার পাসওয়ার্ড দিয়েছেন আপনার ডেটা ব্যবহার করতে। অল্প সময়ের জন্য। আপনার হটস্পট চালু থাকলে সেই ভদ্রলোক আপনার ওয়াই-ফাই জোনের মধ্যে চলে এলেই আপনার ডেটা ব্যবহারের অনুমতি পেয়ে যাবে অটোমেটিক।

তাই মাঝে মাঝেই পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে তাকে এই সুযোগ নেয়ার হাত থেকে বিরত থাকুন।

পাসওয়ার্ড

পাসওয়ার্ড কিভাবে আরও সিকিউরড করবেন?

ইন্টারনেটের এই যুগে পাসওয়ার্ড শব্দটার সাথে আমরা কম বেশি সবাই পরিচিত। কিন্তু এর গুরুত্ব অনেকেই বুঝতে চাই না। আপনার এটিএম কার্ড, বিকাশ কিংবা রকেটের পিন কোডের  মতই ইন্টারনেটের বিভিন্ন পাসওয়ার্ডও অনেক গুরুত্ব বহন করে। ইন্টারনেটের বিভিন্ন পাসওয়ার্ড বলতে আপনার বাসার ওয়াইফাই রাউটারের পাসওয়ার্ড থেকে শুরু করে বিভিন্ন ওয়েবসাইটে আপনার একাউন্টের পাসওয়ার্ড সমান গুরুত্বপূর্ণ। আজকের ব্লগে […]

0 comments

হটস্পট পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে কি করবেন?

আপনার বন্ধু আপনার হটস্পটে কানেক্ট হতে চাইল, আপনাকে তাকে পারয়ারড দিতে হবে, তাইনা? কিন্তু আপনি যদি পাসওয়ার্ড ভুলে গিয়ে থাকেন তাহলে উপায়? কিভাবে তাকে পাসওয়ার্ড দিবেন?

  • Setting> Wireless & networks> Tethering & portable hotspot> Portable wi-fi hotspot> Configure hotspot এই পর্যন্ত চলে যান।
  • নিচের ছবিতে দেখুন এখুন একটি চোখের মত ছবি আছে।হটস্পট পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে কি করবেন
  • উপরের ছবিতে ভাল করে দেখুন। ডান দিকে চোখের মত আইকনে টাচ করলে বাম দিকে আপনার হটস্পটের পাসওয়ার্ড দেখা যাবে।

হটস্পট ব্যবহারের অসুবিধা কি?

হটস্পট ব্যবহারের সুবিধা ছাড়া তেমন কোন অসুবিধা নেই। তবে বেশি ব্যবহারের একটি সমস্যাতে আপনি পরতে পারেন। তাহল- মোবাইল ফোন গরম হয়ে যাওয়া। এছাড়া আর কণ সমস্যা হবার কথা নয়।

মোবাইল ফোন আর কোন কোন কারনে গরম হতে পারে জানতে চান? কিভাবে মোবাইল গরম হওয়া থেকে মোবাইলকে রক্ষা করবেন?

৩০ পয়সা প্রতি মিনিট

কথা বলুন মাত্র ৩০ পয়সা প্রতি মিনিট সাথে ১০টাকা বোনাস !!

মোবাইল অপারেটররা যা শুরু করেছে, সাথে বছর বছর সরকারি অমুক ট্যাক্স তমুক ভ্যাট, মাঝখানে আমরা ইউজাররা খাবি খাচ্ছি। এই অবস্থা থেকে বাঁচার একটা রাস্তা অবশেষে মনে হয় পাওয়া গেল। ভাবছেন গাঁজাখুরি গল্প? আরে না ভাই। উপায় একটা আছে। আইপি ফোনের মাধ্যমে আপনি চাইলে এই হাই কলরেট থেকে বেঁচে যেতে পারেন। আসুন জেনে নেই ৩০ পয়সা […]

0 comments
মোবাইল ফোন কেন গরম হয়

মোবাইল ফোন কেন গরম হয় ? এর প্রতিকার কি?

মোবাইল ফোন গরম হয়ে যাওয়ার সমস্যাটা বেশ কমন, আমরা অনেকেই এই সমস্যায় ভুগছি। কিন্তু আপরা কি জানি মোবাইল ফোন কেন গরম হয় ? এর প্রতিকারই বা কি? ভয়ের ব্যাপার এইটাই যে ফোন গরম হয়ে গেলে অনেক সময় ফোনের বিস্ফোরণ পর্যন্ত হতে পারে। আর সেই কারণেই ফোন ঠান্ডা করার কিছু বেসিক টিপ্স রয়েছে৷ আশা করা যায়, এই […]

0 comments

সবাইকে আন্তরিক ধন্যবাদ দিয়ে আমার আজকের ব্লগ এখানেই শেষ করছিই ধন্যবাদ।

Previous articleস্টপ লস কি এবং টেক প্রফিট কি ? এর সঠিক ব্যবহার জানুন।
Next articleবাংলা ওয়েবসাইট থেকে আয় করা কি সম্ভব? কিভাবে?
যে ব্যর্থ সে অজুহাত দেখায়, যে সফল সে গল্প শোনায়। আমি অজুহাত নয় গল্প শোনাতে ভালবাসি। আসুন কিছু গল্প শুনি, নিজের গল্প অন্যকে শুনাই।