মোবাইল ফোন কেন গরম হয় ? এর প্রতিকার কি?

মোবাইল ফোন কেন গরম হয় ? এর প্রতিকার কি?

মোবাইল ফোন গরম হয়ে যাওয়ার সমস্যাটা বেশ কমন, আমরা অনেকেই এই সমস্যায় ভুগছি। কিন্তু আপরা কি জানি মোবাইল ফোন কেন গরম হয় ? এর প্রতিকারই বা কি? ভয়ের ব্যাপার এইটাই যে ফোন গরম হয়ে গেলে অনেক সময় ফোনের বিস্ফোরণ পর্যন্ত হতে পারে। আর সেই কারণেই ফোন ঠান্ডা করার কিছু বেসিক টিপ্স রয়েছে৷ আশা করা যায়, এই টিপ্স গুলো মেইনটেইন করলে ফোন গরম হবার সমস্যা আর থাকবে না৷

আরও পড়ুনঃ লাঞ্চার দিয়ে আপনার ফোনকে যেকোন ফোনের রুপ দিন।

ফোনের র‍্যামের লিমিট পরিমাণ স্পেস রাখুন

ফোন গরম হবার অন্যতম কারণ হচ্ছে, প্রসেসর ধীরে কাজ করা। এখন প্রশ্ন আসতে পারে, প্রসেসর কেন ধীরে কাজ করে? যখন ফোনের র‍্যাম এর পরিমাণ কমে আসে তখন ফোনের প্রসেসর ধীরে কাজ করে। ফোনে দুই ধরনের মেমোরি থাকে। একটি রেনডম এক্সেস মেমোরি(র‍্যাম), অপরটির রিড অনলি মেমোরি(রোম)।

রেনডম এক্সেস মেমোরি (র‍্যাম) অর্থাৎ অস্থায়ী মেমোরি প্রসেসরকে তথ্য এবং উপাত্ত বিশ্লেষণে সহায়ক। সুতরাং আপনার ফোনে যে র‍্যামটি রয়েছে,তাতে লিমিট পরিমাণ স্পেস রাখতে হবে। আপনার ফোন গরম হবেনা।

নিয়মিত জাঙ্ক ফাইল অপসারণ করুন

জাঙ্ক ফাইল গুলো আপনার ফোন গরম হবার আরেকটা কারণ । এগুলো আপনার ফোনের গতি কমিয়ে দেয়৷ এবং আপনার ফোনটি গরম হয়ে যায়। আর সেই জন্যে ফোনের জাঙ্ক ফাইল গুলো ডিলেট করতে হবে।

আপনি চাইলে নিজেই এ ফাইল গুলো ডিলেট করতে পারেন। তবে অনেক ফাইল রয়েছে যেগুলো আপনার ফোনের যে এপ্লিকেশন গুলো রয়েছে তার কুকিস সংরক্ষণ করে।

সুতরাং ভুলেও সেই ফাইল গুলো ডিলেট করবেন না। আপনি চাইলে জাঙ্ক ফাইল ক্লিনার এপ্লিকেশন ইন্সটল করতে পারেন। গুগল প্লে স্টোরে এই এপ্লিকেশন পেয়ে যাবেন।

রিসেন্ট ট্যাব ডিলেট করে দিন

ফোন ব্যাবহার করা কালীন রিসেন্ট ট্যাব গুলো ডিলেট করুন (একান্তই যদি কোনো কাজ না থাকে)। স্মার্ট ফোন গুলোতে এক সাথে অনেক গুলো ট্যাব বা এপ্লিকেশন খুলে রাখা যায়। ইচ্ছে করলেই তাত্ক্ষনিক ভাবে আরেক ট্যাবে ঢোকা যায়৷ তবে এতে হরহামেশা ট্যাবের এপ্লিকেশন গুলো ডাটা প্রসেস করতে থাকে।

একসাথে ২-৩ টা ট্যাব খুলে রাখা যেতে পারে। তবে অনেক গুলো ট্যাব খুলে রাখলে ফোন গরম হতে পারে, বিশেষ করে কম র‍্যাম সম্পন্ন ফোনে।

হাই কনফিগারেশন এপ্লিকেশন ব্যাবহার থেকে বিরত থাকুন

কম র‍্যাম সম্পন্ন ফোনে হাই কনফিগারেশন এপ্লিকেশন বা ফাইল ব্যাবহার করা ফোন গরম হবার আরেকটা কারণ হতে পারে৷ বিশেষ করে পাবজি, ফ্রি ফায়ার এই সকল এপ্লিকেশন গুলো ফোনে রাখলে। আমার বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে বলছি এই সকল এপ্লিকেশন ২ জিবি র‍্যামের ফোনে ব্যাবহার করার সময় ফোন এতো পরিমানের গরম হয়েছিল, মনে হচ্ছিল এর উপর ডিম ভেঙে দিলে অমলেট হয়ে যাবে।

সুতরাং যাদের ফোন ২ জিবির কম র‍্যাম সম্পন্ন তারা এই সকল এপ্লিকেশন ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন। একান্ত আপনি যদি আপনার প্রিয় গেমস গুলোকে হারাতে না চান তাহলে ফোনের র‍্যাম বাড়ান, না হলে বেশি র‍্যাম সম্পন্ন ফোনে গেমস খেলুন।

সেলুলার ডাটা বেশিক্ষন অন রাখবেন না

সেলুলার ডাটা অন রাখা ফোন গরম হবার আরেকটা কারণ । বিশেষ করে সেলুলার ডাটা ১ ঘন্টার বেশি সময় ধরে অন রাখলে ফোন গরম, বলতে গেলে ভালই গরম হয়। আর সে কারণে ফোনের সেলুলার ডাটা ১ ঘন্টার বেশি সময় ধরে অন রাখা উচিত না। যদি ওয়াই ফাই হলে ভিন্ন কথা।

অন্য কম্পানীর চার্জার ব্যাবহার করা থেকে বিরত থাকুন

ফোন গরম হবার আরেকটা কারণ হচ্ছে ভিন্ন ভিন্ন চার্জার ব্যাবহার করা। আপনি যখন আপনার আত্মীয়দের বাসায় বেড়াতে যান তখন যদি চার্জার নিতে ভুলে যান তাহলে নিশ্চয়ই তাদের কারোর চার্জার দিয়ে ফোন চার্জ দেবেন। তবে আপনার এই ভুলটি পরবর্তীতে বেশ খারাপ প্রভাব ফেলবে। দেখা যাবে যে ফোন ব্যাবহার করতে গেলে বেশিক্ষণ চার্জ থাকছে না, ১০০% চার্জ হচ্ছে না, আবার দেখবেন যে ৪০-৫০% চার্জ থাকতেই ফোন বন্ধ হয়ে যাচ্ছে৷ কিন্তু সবচেয়ে সমস্যার ব্যাপার এই যে, আপনার ফোনের কম্পানী ব্যাতীত অন্য কোনো কম্পানীর চার্জার ব্যাবহার করলে ফোন ব্যাবহার করার সময় মাত্রাতিরিক্ত গরম হয়ে যায়।

আশ করি বুঝতে পেরেছেন মোবাইল ফোন কেন গরম হয় আর উপরের টিপসগুলো মেনে চললে আপনার মোবাইল ফোন গরম হওয়া থেকে বেঁচে যাবে। এছাড়া অন্য কোন সমস্যা হলে কমেন্ট সেকশনে জানান, আমার জানা থাকলে আমি আপনার প্রশ্নের উত্তর দিব। ধন্যবাদ সব্বাইকে।


Leave a Reply