কি ওয়ার্ড কি ও কত প্রকার – এসইও কি এবং এসইও নিয়ে বেসিক ধারনা পর্ব ০৪

কি ওয়ার্ড কি ও কত প্রকার – এসইও কি এবং এসইও নিয়ে বেসিক ধারনা পর্ব ০৪

আসসালামুয়ালাইকুম। কেমন আছেন আপনারা। আজ আমি শুরু করতে চাচ্ছি এসইও কি এসইও নিয়ে বেসিক ধারনা পর্ব ০৪। আশা করি আগের তিনটি পর্ব আপনারা পড়েছেন এবং বেশ ভাল ভাবেই বুঝতে পেরেছেন। আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব কি ওয়ার্ড নিয়ে। আপনারা হয়ত শুনে থাকবেন কোন ব্লগ লেখার প্রথম ধাপই হল কি ওয়ার্ড রিসার্চ। কি ওয়ার্ড রিসার্চ নিয়ে জানতে হলে আমাদের আগে কি ওয়ার্ড নিয়ে জানাটা খুবই বেশি জরুরী।  আসলে আমাদের মনের মত আমরা ব্লগ লিখে গেলাম ব্যাপারটি আসলে তা নয়, মানুষ সার্চ ইঞ্জিনে কি নিয়ে সার্চ করছে সেটা নিয়ে লেখাটাই বুদ্ধিমানের কাজ। তাহলেই আপনার পেইজে ভিজিটর আসবে আর আপনিও লাভবান হবেন। এজন্যই আমার আজকের ব্লগ কি ওয়ার্ড কি ও কত প্রকার তা নিয়ে।

ব্লগ কি ওয়ার্ড কি এবং কত প্রকার এটা জানার পরের ধাপই হল কি ওয়ার্ড রিসার্চ। এটা এসইও এর একটা মোস্ট ইম্পরট্যান্ট পার্ট। পরের পর্বে আমরা শিখব কিভাবে আমরা কি ওয়ার্ড রিসার্চ করব?

আগের তিন পর্ব যদি না পড়ে থাকেন নিচের লিংক এ গিয়ে পড়ে আসবেন আশা করি।

আজকের ব্লগে যা যা থাকছে-

  • কি ওয়ার্ড কি?
  • কি ওয়ার্ড কত প্রকার ও কি কি?
  • কি ওয়ার্ড রিসার্চ কি?
কী ওয়ার্ড কি ও কত প্রকার

কি ওয়ার্ড কি ?

আমরা ইন্টারনেটে কোন কিছু খুঁজে বের করার জন্য সার্চ ইঞ্জিনে যা লিখে সার্চ করি তাই হল কি ওয়ার্ড। ধরুন আপনি একটি এসি কিনতে চান তাহলে আপনি কি করবেন? আপনি হয়ত সার্চ ইঞ্জিনে লিখবেন “Best AC in Bangladesh” তার মানে এটা একটা কি ওয়ার্ড। এসইও নিয়ে কাজ করতে হলে কি ওয়ার্ড নিয়ে সম্যক ধারনা থাকা খুবই জরুরি।

কি ওয়ার্ড কত প্রকার ও কি কি?

আসুন প্রথমে জেনে নেই কি ওয়ার্ড কত প্রকার ও কি কি? কি ওয়ার্ড মূলত ৯ ধরনের হয়ে থাকে।

  • Short-tail keyword
  • Long-tail keyword
  • Short-term fresh keyword
  • Long-term evergreen keyword
  • Product defining keyword
  • Customer defining keyword
  • Geo-targeting keyword
  • LSI keyword
  • Intent targeting keyword

প্রতিটা আইটেম নিয়ে কিছুটা আলোচনা করলে আপনার জন্য বুঝতে সুবিধা হবে। কিছুটা আলোচনা করা যাক।

সর্ট-টেইল কি ওয়ার্ডঃ

তিন কিংবা এর চেয়ে কম শব্দের কি ওয়ার্ডগুলোই হল সর্ট-টেইল কি ওয়ার্ড। সর্ট-টেইল কি ওয়ার্ডের অনেক সার্চ ভলিউম থাকে কিন্তু এটি খুবই প্রতিযোগিতাপূর্ণ। এখানে অনেক কম্পিটিটর থাকে। কোন কিছু খুজতে গেলে মানুষ প্রথমে সর্ট-টেইল কি ওয়ার্ড দিয়েই সার্চ করে থাকে। এথেকে কিছু বুঝা খুবই মুশকিল। যেমন কেও যদি সার্চ দেয় আপেল লিখে তাহলে সে কি আপেল কিনতে চায় নাকি আপেলের গুনাগুন সম্পর্কে জানতে চায় বুঝা খুবই মুশকিল, তাইনা? সর্ট-টেইল কি ওয়ার্ড এর তাই কনভার্সন রেট খুব লো হয়ে থাকে।

লং-টেইল কি ওয়ার্ডঃ

তিন শব্দের চেয়ে বেশি কি ওয়ার্ডগুলোই লং-টেইল কি ওয়ার্ড। এগুলো অনেক বেশি স্পেছিফিক হয়ে থাকে সর্ট-টেইল কি ওয়ার্ডের চেয়ে। লং-টেইল কি ওয়ার্ডের সার্চ ভলিউম কম হয় কিন্তু সর্ট-টেইল কি ওয়ার্ডের চেয়ে প্রতিযোগিতা অনেক কম হয়। লং-টেইল কি ওয়ার্ড নিয়ে লেখতে হলে আপনাকেও অনেক স্পেছিফিক ভাবে লিখতে হবে।

যেমন কেও যদি সার্চ দেয় “আপেলে কি কি ভিটামিন পাওয়া যায়?” তাহলে অবশ্যই বুঝতে হবে সে স্পেছিফিক ঐ প্রশ্নেরই উত্তর খুজছে। এটার কনভার্সন রেট অনেক বেশি হবে কিন্তু সার্চ ভলিউম হবে কম।

সর্ট-টার্ম ফ্রেস কি ওয়ার্ডঃ

এধরনের কি ওয়ার্ড হল সিজনাল কি ওয়ার্ড। যেমন এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাস। আজ হয়ত করোনা ভাইরাস নিয়ে অনেক সার্চ হচ্ছে কিন্তু আজ থেকে বছরখানেক পর আর এই কি ওয়ার্ড এর কোন সার্চ ভলিউম থাকবেনা। কোন মুভি কিংবা সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে এ ধরনের কি ওয়ার্ড হয়ে থাকে। আপনি এধরনের কি ওয়ার্ড নিয়ে লিখলে সাময়িক অনেক ভিজিটর পাবেন কিন্তু কিছুদিন পর ঐ কি ওয়ার্ড আসলে মূল্যহীন হয়ে যাবে।

লং-টার্ম এভারগ্রীন কি ওয়ার্ডঃ

লং-টার্ম এভারগ্রীন কি ওয়ার্ড আসলে ঐসব কি ওয়ার্ড যেগুলো সবসময়ের জন্যই প্রযোজ্য। সময়ের সাথে এর প্রয়োজনীয়তা হারিয়ে যায় না। যেমন আপনি যদি কোন ম্যাথমেটিক্যাল থিউরি কিংবা ফিজিক্সের কোন বিষয় নিয়ে লিখেন আপনি হয়ত ভিজিটর কম পাবেন কিন্তু সারাজীবনই ভিজিটর পেয়ে যাবেন।

প্রোডাক্ট ডিফাইনিং কি ওয়ার্ডঃ

কোন প্রোডাক্টের বর্ণনামূলক কি ওয়ার্ড এটা। এইসব কি ওয়ার্ড দিয়ে তারাই সার্চ দেয় যারা প্রোডাক্টটি কেনার একদম দোড়্গোরায় থাকে। মানে সেই লোক প্রোডাক্টটি আসলে কিনবে বলে মনস্থির করে ফেলেছে এখন সে এর রিভিউ কিংবা ওয়ারেন্টি জানতে চায়। যেমন কেও যদি সার্চ দেয় Huawei Y7 । তারমানে এই লোক এই ফোনটি কিনবে বলে মনস্থির করে ফেলেছে।

জিও-টার্গেটিং কি ওয়ার্ডঃ

এধরনের কি ওয়ার্ড আসলে লোকেশন স্পেছিফিক এবং সার্চ ভলিউম কম হবে কিন্তু এরা নির্দিষ্ট অঞ্চলের জন্য হয়ে থাকে। কারও যদি কোন লোকাল বিজনেস থেকে থাকে তারা এই ধরনের কি ওয়ার্ড নিয়ে কাজ করতে পারে। যেমন- Cheap Hotels in Dhaka, Good restaurant in Dhaka কিংবা Best cycle available in Dhaka এরকম কি ওয়ার্ড হল এর উদাহরণ।

এলএসআই কি ওয়ার্ডঃ

কোন একটি কি ওয়ার্ড এর সমার্থক কোন শব্দ হল এলএসআই কি ওয়ার্ড। এটার বিস্তৃতি বেশি কিন্তু আপনি যদি মূল কি ওয়ার্ড নিয়ে কাজ করেন তাহলে আশা করা যায় অনেক গুলো কি ওয়ার্ড নিয়ে কাজ করার সুবিধা পেয়ে যেতে পারেন। যেমন আপনি মূল কি ওয়ার্ড যদি ধরেন লেবু আর আপনি লেবু চা, লেবু কোথায় ভাল হয়, লেবুর ভিটামিন গুনাবলি ইতাদি নিয়ে লিখেন তাহলে আপনি এক কি ওয়ার্ড দিয়ে অনেকগুলো এরিয়া কাভার করতে পারেন। ব্লগাররা এধরনের কি ওয়ার্ড ব্যবহার করে ভাল ফল পেতে পারেন।

ইন্টেন্ট টার্গেটিং কি ওয়ার্ডঃ

যখন কোন ইউজার কিছু সার্চ করে সে তিনটা ভিন্ন ভিন্ন উদ্দেশ্য নিয়ে সার্চ দিতে পারে। এক হতে পারে সে শুধুই ইনফরমেশন চায়, দুই হতে পারে সে ইনফরমেশন পেয়ে গেছে এখন সে জিনিষটি কেনার ব্যাপারে মনস্থির করে ফেলেছে সে এখন স্পেছিফিকেশন, প্রোডাক্ট কোথাকার, ডেলিভারি চার্জ কত তা জানতে চায় ফাইনালি, তিন সে এবার কিনেই ফেলবে কোথায় গেলে বেস্ট প্রাইজ পাবে কিংবা কোনটার অয়ারেন্টি কেমন তা খুঁজে দেখছে। এই ধরনের  কি ওয়ার্ড গুলোই হল ইন্টেন্ট টার্গেটিং কি ওয়ার্ড।

এখন বলা যায় আপনি কি ওয়ার্ড এর আদ্যপান্ত সব বুঝে গেছেন। জেনে গেছেন কি ওয়ার্ড কি ও কত প্রকার। এবার কি ওয়ার্ড রিসার্চের জন্য আপনি প্রস্তুত। এবারে জানতে পারেন কি ওয়ার্ড রিসার্চ কি?

কি ওয়ার্ড রিসার্চ কি?

ব্লগ লেখা শুরু করার আগেই কি ওয়ার্ড রিসার্চ বা এনালাইসিস করা খুব জরুরী। কোন কি ওয়ার্ড দিয়ে মানুষ সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করছে বেশি, কোন কি ওয়ার্ড কত ভলিয়ুম মান্থলি সার্চ  হচ্ছে তা এ্যানালাইসিস করে বের করার নামই হল কি ওয়ার্ড রিসার্চ।

কি ওয়ার্ড রিসার্চ না করেই আপনি আপনার মত কি ওয়ার্ড নিয়ে লিখে গেলেন কন্টেন্ট আর কোন ভিজিটর পেলেন না, সেক্ষেত্রে আপনি বৃথাই চেষ্টা করে গেলেন আমি বলব। কারন আমাদের আল্টিমেট টার্গেট হল সাইটে ভিজিটর আনা।

কিভাবে  কি ওয়ার্ড রিসার্চ করবেন? এটা আবার আরেকটি অধ্যায়। পরের পর্বে এটা নিয়ে আমি আলোচনা করব। আজ এ পর্যন্তই থাকুক। ভাল থাকবেন সবাই।ধন্যবাদ। আল্লাহ হাফেজ।

Frequently Asked Question (FAQ)

১. কি ওয়ার্ড কাকে বলে?

উত্তরঃ প্রায়ই আমরা গুগলে জানার আগ্রহ থেকে বিভিন্ন শব্দ বা শব্দ গুচ্ছ লিখে সার্চ দিয়ে থাকি, এইসব শব্দ কিংবা শব্দ গুচ্ছকে বলা হয় কি ওয়ার্ড।

২. কি ওয়ার্ড কি পূর্ব নির্ধারিত?

উত্তরঃ না, কি ওয়ার্ড পূর্ব নির্ধারিত কিছু নয়, এটা যুগের সাথে সাথে পরিবর্তনশীল। প্রতিদিন নতুন নতুন কি ওয়ার্ড গুগলের অভিধানে যুক্ত হচ্ছে। আমরা নিজেরাই নতুন নতুন কি ওয়ার্ড তৈরি করছি।

৩. কি ওয়ার্ড রিসার্চ কি আসলেই এতটা গুরুত্বপূর্ণ?

উত্তরঃ আপনি যদি ব্লগিং করে টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে অবশ্যই কি ওয়ার্ড এনালাইসিস বা রিসার্চ গুরুত্বপূর্ণ। যারা গুগলে বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন তারা কি ওয়ার্ড বেজ করে বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন। তাই আপনি যদি বেশি ইনকাম করতে চান কি ওয়ার্ড রিসার্চ আপনাকে করতেই হবে।

৪. কি ধরনের কি ওয়ার্ড নিয়ে কাজ করা উচিত?

উত্তরঃ আমি বলব, আপনার উচিত লং টেইল কি ওয়ার্ড নিয়ে কাজ করা। সহজে র‍্যাংক করতে পারবেন।


One response to “কি ওয়ার্ড কি ও কত প্রকার – এসইও কি এবং এসইও নিয়ে বেসিক ধারনা পর্ব ০৪”

Leave a Reply